ভাস্কর্য কী ? || পড়াশোনা সবসময় সবখানে™
পর্যটনপ্রত্নতত্ত্ববিনোদন

ভাস্কর্য কী ?


2020-Nov-12 8:16 PM

ভাষ্কর্যের ক্ষেত্রে বেনভেনুতো সেলিনি ( Benvenuto Cellini, 1500-71 খ্রি.) একটি বিখ্যাত নাম। তিনি একাধারে একজন চিত্রকর, রাজনীতিবিদ, সৈনিক এবং প্রেমিক হিসেবে বিখ্যাত হয়ে আছেন। প্রথম জীবনে তিনি একজন স্বর্ণশিল্পী ছিলেন। কিন্তু মাইকেল এঞ্জেলোর প্রভাবে বড় আকারের শিল্পকর্ম নির্মাণে অনুপ্রাণিত হন। রাজা ১ম ফ্রান্সিসের ফরমায়েশে তিনি নির্মাণ করেন ‘ফ্নটেনব্লর ডায়ানা’ (Dinna of Fontainbleau) । এটিতে ইতালীয় ফরাসি ম্যানারিজমের প্রভাব একই সাথে পরিলক্ষিত হয়। ফিগারটি মাইকেল এঞ্জেলোর মেসি গির্জার শায়িত ফিগার থেকে নয়ো হয়েছে। তবে মাথাটি তুলনামূলকভাবে ছোট। শরীরের উপরিভাগ বাইরে বের হওয়া এবং হাত পা লাম্বাটে ধরনের। এটি অনেকাংশেই বিমূর্তন ফিগার, যা রসোসসহ আনেক শিল্পীর চিত্রকর্মে পাওয়া যায়।

ইতালীয় প্রভাব ফ্রান্সেও এসে পড়ে, যার ফলশ্রুতিতে একজন তরুণ ভাস্কর ইতালি গমন করেন। এঁর নাম জাঁ দ্য বুলোন (Jean de Boulogne)। তিনি ইতালীয় শিল্পী গিওভ্যানি দা বোলোগনার (Giovanni da Bologna, 1529-1608) অধীনে শিল্পকলা শিক্ষা করেন। এই শিল্পীকে খুব একটা স্মরণ করা না হলেও মাইকেল এঞ্জেলোর পর তিনিই ছিলেন সবচেয় বিখ্যাত ভাস্কর। তাঁর কাজে মাইকেল এঞ্জেলো এবং বারনিনি উভয়েরই রীতির মিলো ছিল। গিওভ্যানি নির্মিত ‘একজন স্যাবাইন নারীকে র্ধষণ’ (Rape of the Sabine Woman) ভাস্কর্যটিতে লক্ষ করা যায় যে তিনি ম্যানারিস্ট রীতিকে ভেঙেছেন এবং একজন বৃদ্ধ, একজন তরুণ এবং একজন তরুণীর সমন্বয়ে এই ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেছেন। রোমান পৌরাণিক কাহিনী অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে এই বিখ্যাত ভাস্কর্যটি। প্রাচীন রোমাক সমাজে প্রতিবেশী স্যাবাইন অঞ্চল থেকে স্ত্রী-গ্রহণের রেওয়াজ প্রচলিত ছিল। গিওভ্যানি হেলেনিস্টিক যুগের লাওকুন ভাস্কর্যের আদলে এটি নিমার্ণ করেন। এটিকে দেখতে হলে বিভিন্ন দিক থেকে দেখতে হয়। হেলেনিস্টিক যুগের পর এ-ধরনের ভাস্কর্য দেখা যায় নি। এ-ভাস্কর্যের উল্লেখযোগ্য দিক হল মাইকেল এঞ্জেলোর ক্রীড়াবিদসদৃশ নমনীয়তা (Athletic flexibility)।

ইউরোপের অন্যান্য দেশের মতো স্পেনে ষোড়শ শতাব্দীতে ম্যানারিজমের প্রভাপ পড়েছিল এবং তা বারোক যুগ পর্যন্ত বিদ্যমান ছিল।

এটি ঠিক যে স্পেন ইতালীয় রেনেসাঁর অনেক কিছুই গ্রহণ করে নি। এমনকি বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার ও জ্ঞান-বিজ্ঞান। মধ্যযুগ স্পেন ইউরোপের ঘটনাবলি থেকে সব সময় বিচ্ছিন্ন থেকেছে।

স্পেনে মরমিবাদী আদর্শ নিয়ে চিত্রকলা রচনা করেন এল্-গ্রেকো। অপর দিকে কঠিন অ-সেন্টিমেন্টাল বাস্তববাদী বিষয় নিয়ে চিত্রকলা রচনা করেন জোসে ডি বিরবেরা (Jose de Ribera, 1591-1652)। তিনি স্পেন থেকে নেপল্সে চলে যান এবং সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। তাঁর ছবিতে বাস্তববাদী চরিত্র শুরুত্ব লাভ করে। দুঃখ ও যন্ত্রণা ‍মূর্ত হয়ে উঠেছে তাঁর ছবিতে।

 


News all time